কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন?

Anti rape campaign 1 poster—Mohammad Tauheed

বাংলাদেশে ধর্ষণের বিচারে মাত্র ৩% মামলায় এ পর্যন্ত অপরাধী সাজা পেয়েছে। এর একটা বড় কারণ অপরাধ প্রমাণের জন্য আলামতের অভাব, সেই সাথে আইনের দুর্বলতা।

যে হারে এই অপরাধ বাড়ছে, তাতে দুঃখজনকভাবে আমাদের আশেপাশেই যে কেউ ধর্ষণের শিকার হতে পারেন। এমন ভয়াবহ ঘটনার পর আমরা মানসিক বিপর্যয় থেকে অনেক ভুল করতে পারি। ধর্ষিত ব্যক্তিকে সাহায্য করা, এবং বিচার প্রক্রিয়ার সুবিধা হয় এমন প্রাথমিক কাজগুলোর ব্যাপারে আমরা অনেকেই কিছুই জানিনা। যে কারণে অপরাধীরা ধরা পড়েও পার পেয়ে যায়।

ধর্ষণ বন্ধের অন্যতম পন্থা যদি “ন্যায় বিচার” হয়, তাহলে বিচার-সহায়ক প্রাথমিক করণীয় বিষয়গুলো আমাদের সবাইকে জানতে হবে। এখানে প্রতিটি ছবিতে কিছু গুরূত্বপূর্ণ বিস্তারিত তথ্য আছে, পড়ুন। নিজে জানুন, নোট রাখুন, শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন।

Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
কে, কেন, কিভাবে এগুলো বিশ্লেষণে না গিয়ে সবার আগে আক্রান্ত ব্যক্তির পাশে দাঁড়ান। তাকে সাহস দিন। কোনক্রমেই ঘটনা আড়াল করা, চেপে যাওয়া, আপোষ করার মত উপদেশ দিবেন না, এবং এ ধরণের চেষ্টা করবেন না।
Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
স্বাভাবিক ভাবেই সবার আগে ধর্ষিত ব্যক্তি এটাই করতে চাইবেন। ডাক্তারি পরীক্ষার আগে গোসল করলে গুরূত্বপূর্ণ আলামত নষ্ট হবে।
Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
কাপড় ও চুল অপরাধী শনাক্তকরণের শক্তিশালী প্রমাণ। এগুলো নষ্ট হতে দেবেন না। অপরাধীর ফেলে যাওয়া সবকিছু সংগ্রহ করুন।
Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
২৪ ঘন্টার মধ্যে জেলা বা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করুন: উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র বা প্রাইভেট হাসপাতালে অনেক সময় মেডিক্যাল পরীক্ষা করার উপযুক্ত সরঞ্জাম থাকে না। সুতরাং প্রয়োজনীয় মেডিক্যাল টেস্ট করা সম্ভব এমন হাসপাতালে তাকে নিয়ে যান।
Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতার ঘটনা ঘটলে জরুরি সহায়তার জন্য হেল্পলাইন ১০৯-এ ফোন করে জানান। এই নম্বর টোল ফ্রি অর্থাৎ এর জন্য কোনো টাকা খরচ হবে না। জরুরি প্রয়োজনে যে কোনো সহায়তার জন্য জাতীয় হেল্পলাইন ৯৯৯-এ কল করুন

মামলা দায়ের করুন: নিকটবর্তী থানায় গিয়ে ধর্ষণের মামলা দায়ের করুন। যদি পুলিশ মামলা নিতে গড়িমসি করে তাহলে সরাসরি আদালতে গিয়ে আর্জি পেশ করুন। আইনি প্রক্রিয়ায় না গিয়ে মীমাংসা করার কোনো চেষ্টা করবেন না। ধর্ষক বা তার প্রতিনিধি কেউ যদি আদালতের বাইরে কোনো সমঝোতা বা মীমাংসা করার চেষ্টা করে তা বেআইনি। যদি অপরাধী নিজে বা প্রভাবশালী ব্যক্তিদের দিয়ে ভয় দেখায় বা দেখানোর চেষ্টা করে তাহলে স্থানীয় ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারগুলোতে সহায়তা চান।
Anti rape কেউ ধর্ষণের শিকার হলে কী করবেন
যৌন নির্যাতন যেকোনো শারীরিক আঘাতের চাইতে অনেক বেশি ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। যখন কেউ ধর্ষণের শিকার হয় তখন সাধারণত সে ঘৃণা-ক্ষোভ-লজ্জা-আতঙ্কে দিশেহারা হয়ে পড়ে। পরবর্তী সময়ে তারা বিষণ্ণতায় ভোগে এবং প্রায়ই দেখা যায় তারা আত্মহত্যার চেষ্টা করে। সুতরাং নির্যাতিত ব্যক্তির মনোবল বৃদ্ধির জন্য মনোরোগ ও আইনি বিশেষজ্ঞের পরামর্শ জরুরি।


[ওপেনসোর্স CC BY-NC 4.0। ছবি/লেখা: Mohammad Tauheed, সহায়তা করেছেন Sarah-Jane Saltmarsh। কিছু তথ্য নেওয়া হয়েছে BRAC Blog থেকে]